ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮শে জানুয়ারী ২০২০, ১৬ই মাঘ ১৪২৬


আ'লীগ ত্রিবার্ষিক সম্মেলন : জয় ও পুতুল আলোচনায়


১০ ডিসেম্বর ২০১৯ ১০:৩৫

আপডেট:
১২ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৮:১৯

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ছাড়াও বঙ্গবন্ধু পরিবারের আরও দুই সদস্য এবার দলটির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে আসতে পারেন বলে জল্পনা চলছে সর্বত্র। এমনকি আওয়ামী লীগের অনেক কেন্দ্রীয় নেতার মুখেও শোনা যাচ্ছে এমন কথা। দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা  বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ রেহানা, দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয় ও সায়মা ওয়াজেদ পুতুলকে ঘিরে আলোচনা রয়েছে দলের ভেতরে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর এক সদস্য বলেন, দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা এবার সভাপতি পদে থাকলেও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে আরও দুজনের অভিষেক ঘটবে। কারণ এ দফায় নেতা না হলে অনেক পিছিয়ে যেতে হবে। তাছাড়া বয়সের বিয়ষটি তুলে দলীয় সভাপতির পদ থেকে বিদায় নিতে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে আওয়ামী লীগের নেতারা

মনে করেন শেখ হাসিনার বিকল্প এখনো কেউ নয়। সভাপতিম-লীর আরেক সদস্য বলেন, শেখ হাসিনার স্থলাভিষিক্ত হতে পারেন এমন একজনকে প্রস্তুত করে তুলতেই এবারে কমিটিতে বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের ভেতর থেকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে আনা হতে পারে দুজনকে। সভাপতিম-লীর ওই সদস্য আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু পরিবারের ওই দুই নেতার সঙ্গে মানিয়ে রাজনীতি করতে পারেন এমন নেতারাই এবারের কমিটিতে পদ পাবেন। তবে অবশ্যই তাদের রাজনৈতিক যোগ্যতা-দক্ষতা ও পারিবারিক ঐতিহ্য থাকতে হবে।



আওয়ামী লীগের সম্পাদকম-লীর এক সদস্য বলেন, তরুণ নেতৃত্বের আওয়ামী লীগ হওয়ার সম্ভাবনা এবার খুব বেশি। সময়ের প্রয়োজনে রাজনীতিতে তারুণ্যনির্ভর আওয়ামী লীগের কথা ভাবছেন শেখ হাসিনা। সভাপতির দায়িত্ব পালন করে তারুণ্যনির্ভর আওয়ামী লীগকে ভবিষ্যৎ রাজনীতিতে সংকট মোকাবিলায় ভূমিকা রাখতে পারেন, তা আবার পদে থেকে তা নিশ্চিত করতে চান শেখ হাসিনা।

সম্পাদকম-লীর ওই নেতা আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনে করেন আওয়ামী লীগের জন্য এ সম্মেলন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ সম্মেলনে নেতৃত্ব নির্বাচনে ভুল কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে আগামীর আওয়ামী লীগকে এর মাশুল দিতে হবে।


তাই এবারের সম্মেলনে যুগপোযোগী নেতৃত্ব তুলে আনাই প্রধানমন্ত্রীর অন্যতম লক্ষ্য। সম্পাদকম-লীর এই নেতা আরও বলেন, শেখ হাসিনা দলকে এবার আরও বেশি সময় দেবেন। ক্ষমতায় থাকতে গিয়ে দলের অনেক দুর্বলতা দেখা দিয়েছে বলেও মনে করেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী।

আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর আরেক সদস্য বলেন, এবার দলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে তরুণ নেতৃত্বের সংখ্যা অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি আসবে। তিনি বলেন, মূলত ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের টিম হবে এবারের কমিটি।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেছেন, এটি একান্তই পার্টির সভাপতি শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত। তবে তাদেরও ইচ্ছার ব্যাপার আছে। তারা রাজনীতিতে আসবেন কিনা সেটাও তো জানার ব্যাপার আছে।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, শেখ হাসিনার সুযোগ্য সন্তান সজীব ওয়াজেদ জয় এবং সায়মা ওয়াজেদ পুতুল ইতোমধ্যে নিজ নিজ চিন্তা-চেতনা ও কর্মদক্ষতা দিয়ে শুধু আওয়ামী লীগের নয়, দেশ ও দেশের বাইরের মানুষের মন জয় করেছেন। আমরা উন্মুখ হয়ে আছি কবে তাদের মতো উচ্চশিক্ষিত, সৎ ও কর্মদক্ষ মানুষ আওয়ামী লীগে এসে বিশ্বায়নের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নেতৃত্ব দেবেন।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য কাজী জাফরউল্যাহ বলেন, নেতৃত্বে কারা আসবেন, কারা বাদ পড়বেন এমন কোনো পর্যালোচনা করার মতো তথ্য আমাদের কাছে নেই। তিনি বলেন, এর এখতিয়ার দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার। এ সংক্রান্ত কোনো আলোচনা দলীয় প্রধানের সঙ্গে আমাদের হয়নি। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের রাজনীতিতে আসার সময় এখনই। তাই আমি মনে করি এবারের সম্মেলনে তারা আসবেন।