ঢাকা শনিবার, ১৯শে অক্টোবর ২০১৯, ৪ঠা কার্তিক ১৪২৬


শুধু দ্বারে দ্বারে নয়, শিক্ষার্থীদের অন্তরে অন্তরে যেতে হবে ছাত্রলীগকে!


১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ২১:২৯

আপডেট:
১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১১:১৪

 শুধু দ্বারে দ্বারে নয়, শিক্ষার্থীদের অন্তরে অন্তরে যেতে হবে ছাত্রলীগকে!

আসন্ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন জয় লাভ করার জন্য ছাত্রলীগকে শুধু শিক্ষার্থীদের দ্বারে দ্বারে নয় , ছাত্র ছাত্রীদের অন্তরে অন্তরে যেতে হবে বলে মন্তব্য করেন মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।আজ দৈনিক আমাদের দিনকে একান্ত সাক্ষাৎকার একথা বলেন।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, সময় কম, শুধু শিক্ষার্থীদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে লাভ নাই, শিক্ষার্থীদের মনে স্থান করে নিতে হবে আগে।

তিনি আরো বলেন, হাসিমুখে সুন্দর ব্যবহার, যেকোনো অন্যায়ের প্রতিবাদ, সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে সোচ্চার, নিয়মিত জনহিতকর ও মানবিক কর্মে শিক্ষার্থীদের মনে শ্রদ্ধা-ভালোবাসার স্থায়ী আসন গেড়ে নেয়া, তবেই শিক্ষার্থীরা ভালবাসবে , কথা শুনবে, বিশ্বাস করবে, মানবে।
ইতিবাচকতার ব্রান্ড এম্বাসেডর হয়ে বদলে যাবার প্রচেষ্টা থাকতে হবে প্রতিটি নেতা-কর্মীদের কথায়, আচরণে, কর্মে। শুরু হোক আজ এই মুহুর্ত থেকেই... সাধারণ শিক্ষার্থী ও গণমানুষের কাছে যেন 'পজেটিভ চেঞ্জ'র এই বার্তাটা পৌছে যায়।

তিনি মনে করেণ ,ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ বড়, এই মানসিকতা স্বীয় অন্তরে ধারণ করতে হবে।

ইনশাল্লাহ, ডাকসু জিতলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত, শেখ হাসিনার লাখো ভ্যানগার্ডকে পাশে পাবো গুণগত পরিবর্তন আর ইতিবাচকতার জয়গানে সুরে সুর মেলাতে। আমাদের মাঝে ভালো কিছু করার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকলে সাধারণ শিক্ষার্থীরাও ঠিক কথা শুনবে, হাসি মুখে ভোট দেবে ছাত্রলীগ প্যানেলকে।”
গোলাম রাব্বানী আরো বলেন,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৮ বছরের আকাঙ্ক্ষিত ডাকসুর তফসিল ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ তিনটি নাম ওতপ্রোতভাবে জড়িত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের জন্ম দিয়েছে যার নেতৃত্বে ছিলও ডাকসু। ২৮ বছর পরে আমরা ডাকসু ফিরে পেয়েছি। বঙ্গবন্ধু যে স্বাধীন সোনার বাংলা চেয়েছিলেন সেটা বাস্তবায়ন করতে গেলে আগামীতে নতুন নেতৃত্ব প্রয়োজন। যেভাবে ৭১ সালের স্বাধীনতা সংগ্রামে দেশের জন্যে নেতৃত্ব দিয়েছে ডাকসু আগামীতেও উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশকে গড়ে তুলতে নেতৃত্ব দিবে এই ডাকসু।