ঢাকা শনিবার, ২৫শে মে ২০১৯, ১২ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬


হঠাৎ রাজনীতিতে আসা প্রসঙ্গে মুখ খুললেন নায়িকা মৌসুমী


১৮ জানুয়ারী ২০১৯ ১১:১০

আপডেট:
২৫ মে ২০১৯ ২২:০২

হঠাৎ করে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনে আলোচনায় ঢাকাই সিনেমার প্রিয়দর্শিনী নায়িকা মৌসুমী। তাকে এর আগে কখনোও রাজনীতির মাঠে দেখা যায়নি। সদ্য শেষ হওয়া নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রচারণাতে অংশ নিয়েছেন নানা অঙ্গনের শতাধিক তারকা। সেখানেও দেখা যায়নি চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে। চিত্রনায়ক ফারুকের প্রচারণাতেও ছিলেন না তিনি।

কিন্তু সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনে আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে তিনি। তার মনোনয়ন নিয়ে চারদিকে নানা আলোচনা ডালপালা মেলেছে। এমনই সময় সাংবাদিক সম্মেলন করে রাজনীতিতে আসা প্রসঙ্গে খোলামেলা কথা বললেন মৌসুমী।


আজ বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারি এফডিসিতে দুপুর আড়াইটায় সংবাদ সম্মেলনে মৌসুমী বলেন, ‘আমি প্রকাশ্যে কখনো রাজনীতি করিনি। হঠাৎ করে মনোনয়ন কেনায় সবাই চমকেছেন। অনেক কথা বলছেন। এ নিয়ে আমি ভাবছি না। আমি মনে করি রাজনীতি যে কোনো মুহূর্তে যে কেউ করতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তরুণদের রাজনীতিতে আসার আহ্বান করেছেন। তিনি তারুণ্য নির্ভর একটি মন্ত্রিসভাও করেছেন। এগুলো দেখেই আমি রাজনীতিতে আসার সাহস পেয়েছি।’

তারেক জিয়ার সঙ্গে নায়িকা মৌসুমীর একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। অনেকেই দাবি করছেন তিনি বিএনপি করতেন। এখন কেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনলেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘একজন তারকা দেশের প্রয়োজনে যে কোনো সরকারের অনুষ্ঠানেই থাকতে পারে। তার মানে এই নয় তিনি ওই সরকারের দল করেন। আমি কোথাও কোনোদিন বলিনি যে আমি কোন দল করি।

এবারই প্রথম জানালাম, আমি আওয়ামী লীগ করি। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন তিনি নিজ হাতে ৫০টি সংরক্ষিত আসনে এমপিদের নির্বাচন করবেন। তিনি এও বলেছেন এই বাছাই প্রক্রিয়া হবে নিরপেক্ষ। তাই আমি সাহস করে এগিয়েছি।’

মৌসুমী আরও বলেন, ‘আমার ইমেজ চলচ্চিত্র দিয়ে তৈরি করেছি। আমার নতুন করে কোনো পরিচিতি লাগবে না। সুযোগ পেলে আমি প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশের সেবা করতে চাই। মহিলা ও শিশুদের নিয়ে কাজ করতে চাই।’

একাধিকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী এই নায়িকা মনে করেন, জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে দীর্ঘদিন তার কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে। সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আওয়ামী লীগের হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারে দেশের জন্য সাফল্য বয়ে আনতে পারবেন।

তিনি বলেন, 'অনেক আগে থেকেই আমার ইচ্ছে ছিলো এমপি হওয়ার। মানুষের জন্য কিছু করতে হলে একটি শক্ত প্লাটফর্ম দরকার হয়। তাই আমি আওয়ামী লীগের প্লাটফর্মে এসেছি। আমার একটা জনপ্রিয়তা আছে। দেশের মানুষ আমাকে চিনেন, জানেন। নিজের একটা ইমেজ আমি তৈরি করেছি। তাই রাজনীতিতে আসতে আমার বাড়তি কোনো কিছুর দরকার নেই বলে মনে করি।’

এবারের নির্বাচনে নৌকার প্রচারণায় অনেক তারকার দেখা মিললেও মৌসুমীকে কেন দেখা যায়নি? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে মৌসুমী বললেন, ‘আমি নিরাপত্তাহীনতার কথা ভেবে যাইনি। দল থেকে আমার সাথেও যোগাযোগ করা হয়েছিল। আমি বিনয়ের সাথে তাদের বুঝিয়েছি। প্রত্যেকেরই ব্যক্তিগত দর্শন থাকে। আমারও আছে। সেই দর্শন থেকেই প্রচারণায় ছিলাম না। কিন্তু সমর্থন আমার নৌকাতেই ছিল। এটা দলের হাই কমান্ড জানে। এটাকে নিয়ে কথা বলার কিছু নেই।’

মৌসুমী বলেন, ‘নৌকার প্রচারণা করলেই কেউ আওয়ামী লীগ হয়ে যাবেন ব্যাপারটা তা নয়। এখন আমি মনোনয়ন কিনেছি, আমি আওয়ামী লীগের মানুষ এটার প্রমাণ দিলাম। হতেও পারে প্রধানমন্ত্রীর চোখে আমি যোগ্য। কারো কিছু বলার থাকবে না। নেত্রী কখনো বাছাই করতে ভুল করেন না।’

ভক্তদের উদ্দেশ্যে মৌসুমী বলেন, ‘যেসব ভক্ত দর্শক আমার রাজনীতিতে আসায় কষ্ট পেয়েছেন তাদের বলবো, আমি মৌসুমী নতুন করে আর কোনো মৌসুমী হবো না। আপনাদের ভালবাসায় এই অবস্থানে এসেছি, এবার দেশসেবা করতে চাই। আমার জন্য দোয়া করবেন।’