ঢাকা বৃহঃস্পতিবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৯ই ফাল্গুন ১৪২৬


ক্যারিয়ারের দুঃসময়ে যেভাবে স্বামীর পাশে থাকবেন


২৭ জানুয়ারী ২০২০ ১৮:২২

আপডেট:
২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:১৪

চাকরি বা ক্যারিয়ার নিয়ে সংকট পরিবারের সদস্যদেরও জানতে দিতে চান না অনেকে। তবে দাম্পত্যসঙ্গী হিসেবে স্ত্রীর কাছে বিষয়টি গোপন থাকে না। সংসারে কোনো একজন চাকরি বা ক্যারিয়ার নিয়ে সমস্যায় পড়লে তা প্রভাব ফেলে দাম্পত্য সম্পর্কেও।

এমন মুহূর্তে স্বামীর পাশে দাঁড়াতে হবে সবচেয়ে বেশি স্ত্রীকেই। ধৈর্য ধরে অনুপ্রেরণা দিতে হবে সঙ্গীকে। এ নিয়ে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিজনেস টাইমস একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

শান্ত থাকুন

স্বামী যদি পরিবারের একমাত্র কর্মজীবী ব্যক্তি হলেও চিন্তিত হবেন না, শান্ত থাকুন। কোনোভাবেই নেতিবাচক চিন্তাকে মনে স্থান দেবেন না। বরং আত্মবিশ্বাস ধরে রেখে স্বামীর পাশে দাঁড়ান। তার কথা শুনুন, কীভাবে এই পরিস্থিতি থেকে ঘুরে দাঁড়ানো যায়, তা নিয়ে আলোচনা করুন। আবেগে দিয়ে নয় যুক্তি দিয়ে ভাবুন।

বাইরে আলোচনা নয়

স্বামীর চাকরি নিয়ে বন্ধুবান্ধব বা আত্মীয়দের সঙ্গে অকারণে আলোচনা করা উচিত হবে না। শুরুতে ধাক্কাটা সামলে নিতে দিন তাকে।

এরপর তার সঙ্গে আলোচনা করে শুধু সেই সব ব্যক্তিদেরই বিষয়টি জানান যারা আপনার স্বামীকে নতুন চাকরি একটি পাইয়ে দিতে নিঃস্বার্থভাবে সাহায্য করতে পারবেন।

স্বামীকে চাকরি খুঁজতে সাহায্য করুন

স্বামীকে বোঝান এই সংকটে উনি একা নন। শুধু মুখে না বলে কাজেও তার পাশে থাকুন। বায়োডাটা লিখতে সাহায্য করুন। নিজের নেটওয়ার্ক কাজে লাগিয়ে চাকরি খুঁজুন। তিনি নতুন কোনো প্রশিক্ষণ নিতে চাইলেও উৎসাহ দিন। মোট কথা তাকে যতভাবে সম্ভব সাহায্য করুন।

খরচের ব্যাপারটা সামাল দিন

পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতি কেমন, সঞ্চয়ের অর্থ দিয়ে কতদিন চলবে, তার একটা হিসাব করে নিন। নিজে যদি কর্মজীবী হন, সেটিকে কাজে লাগান। অপ্রয়োজনীয় খরচ কিংবা বিলাসিতা এড়িয়ে চলুন। ঋণ নেয়ার প্রয়োজন হলে ঘনিষ্ঠ কোনো বন্ধু বা আত্মীয়ের কাছে যেতে পারেন, পরিস্থিতি ভালো হলে তা শোধ করে দেবেন।